কেমন ছিল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ২০১৫-১৬

জেবি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ২০১৫-১৬ অনেক কারনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ঝমকালো এক অনুষ্ঠানের মাধ্য দিয়ে শুরু হয়েছিল যার অধ্যায়। আগের আসরগুলোর চেয়ে ছিল একদম ভিন্ন আমেজ নিয়ে। কি লোগো উন্মোচন, অংশগ্রহণকারীর দলগুলোর জার্সি উন্মচোন, থিম সং, অফিসিয়াল ব্রডকাস্টার সবই ছিল এবারের ঘোরোয়া লিগের সর্বচ্চ আসরে। ঢাকার বাইরে আরও চারটি ভেন্যুতে বিপিএল হওয়া এবারই প্রথম। সবগুলো ম্যাচই দেখা গেছে টেলিভিশনসহ ফেসবুক এবং ইউটিউবে সরাসরি।

শুরুটা হয়েছিল চট্টগ্রামে। ২০ জুলাই সন্ধ্যায় এম এ আজিজ স্টেডিয়াম এক জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিপিএল ২০১৫-১৬ মৌসুম।   এর চারদিন পর ২৪ জুলাই আগের মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন দল শেখ জামাল এবং আরামবাগ ক্রীড়া চক্র মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় বিপিএল ২০১৫-১৬ মৌসুম।

 

এবারের লিগে ১২টি দল অংশগ্রহণ করে। আগের ১১ দলের সাথে যোগ দেয় আরামবাগ ক্রীড়া চক্র। ১৩২ ম্যাচের বিপিএল অনুষ্ঠিত হয় পাঁচটি ভেন্যুতে। চট্টগ্রাম, ঢাকা  ছাড়াও খেলা হয় ময়মনসিংহ, সিলেট ও গোপালগঞ্জে। লিগে মোট গোল সংখ্যা ৩৪২টি।

 

প্রথম দল হিসেবে বিপিএলের ইতিহাসে ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ৫২ পয়েন্ট নিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়। ২০০৭, ২০০৮-০৯, ২০০৯-১০ ও ২০১১-১২ মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগের শিরোপা জিতেছিল আবাহনী। ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে থেকে রানার্স আপ হয়  এবারের বিপিএলের চমক চট্টগ্রাম আবাহনী।   রেলিগেশন জোনে রয়েছে ফেনী সকার এবং উত্তর বারিধারা। দুই দলের পয়েন্ট সমান ১৮ করে। প্লে অফের মাধ্যমে নিশ্চিত হবে কে রেলিগেশন হবে এবারের বিপিএল থেকে।

 

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ২০১৫-১৬ মৌসুমের পয়েন্ট টেবিলঃ

  ক্লাব   ম্যাচ    জয়      ড্র    হার গোল দিয়েছে গোল খেয়েছে    +/- পয়েন্ট
ঢাকা আবাহনী   ২২    ১৫      ৭     ০      ৪৮     ১৬    ৩২   ৫২
চট্টগ্রাম আবাহনী   ২২    ১৪

 

     ৫

 

    ৩

 

     ৩৬

 

    ১৫

 

   ২১

 

  ৪৭

 

শেখ জামাল   ২২

 

    ৮

 

     ৮

 

     ৬

 

     ৩৪

 

    ৩০

 

    ৪

 

  ৩২

 

ব্রাদার্স ইউনিয়ন

 

 ২২     ৭      ৯      ৬      ৩৭     ৩৪     ৩   ৩০
মুক্তিযোদ্ধা  ২২    ৮     ৬      ৮      ২৮ ২৮    ০   ৩০
আরামবাগ

 

 ২২   ৫    ১২     ৫     ২১ ২১    ০    ২৭
রহমতগঞ্জ

 

  ২২

 

 

    ৬

 

   ৯

 

    ৩০

 

৩৫

 

 -৫

 

  ২৭

 

শেখ রাসেল  ২২

 

 

 

 

১৯

 

২৪

 

-৫

 

 ২৫

 

টীম বিজেএমসি ২২ ১০ ২৯ ৩৬ -৭ ২৫
ঢাকা মোহামেডান ২২ ১১ ২০ ২৯ -৯ ২০
ফেনী সকার ক্লাব ২২ ১২ ২১ ৩৫ -১৪ ১৮
উত্তর বারিধারা ২২ ১৪ ১৯ ৩৯ -২০ ১৮

 

 

দলগতভাবে সর্বচ্চ গোল ঢাকা আবাহনীর ৪৮টি এবং এককভাবে সানডে সিজোবা ১৯ গোল করে সেরা গোলদাতা নির্বাচিত হন।  বাংলাদেশীদের সর্বচ্চ গোল করেন আরামবাগের সাজিদ এবং ঢাকা মোহামেডানের সবুজ (৮ গোল) করেন।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ২০১৫-১৬ এর টপ স্কোরারগণঃ

১। সানডে সিজোবা-          ঢাকা আবাহনী-     ১৯ গোল

২। কিংসলিএ চিগোজি-      ব্রাদার্স ইউনিয়ন-     ১৪ গোল

৩। সামসন লাইসু-            টীম বিজেএমসি-     ১৪ গোল

৪। ওয়ালসন অগাস্টিন-      ব্রাদার্স ইউনিয়ন-     ১৩ গোল

৫। সিয়ো জুনাপিয়ো-         রহমতগঞ্জ-            ১২ গোল

৬। লি টাক-                     ঢাকা আবাহনী-      ১০ গোল

৭। ওয়েডসন এন্সেলমে-     শেখ জামাল-           ৯ গোল

৮। ল্যান্ডিং ডার্বি-             শেখ জামাল-            ৯ গোল

৯। এমেকা ডার্লিংটন-         শেখ জামাল-           ৯ গোল

১০। সাজিদুর রহমান সাজিদ- আরামবাগ-           ৮ গোল

১১। তৌহিদুল আলম সবুজ-  মোহামেডান-            ৮  গোল

১২। এলিটা কিংসলে-         টীম বিজেএমসি-      ৭  গোল

১৩। লিওনেল সেইন্ট-        চট্টগ্রাম আবাহনী-     ৭ গোল

১৪। জাহিদ হোসাইন-        চট্টগ্রাম আবাহনী-     ৬ গোল

১৫। জেমস জুলস ইকাংগা-  শেখ রাসেল-           ৬ গোল

 

 

 

বিগ স্কোরিং ম্যাচসমূহঃ

২৯ জুলাই ২০১৬  চট্টগ্রাম আবাহনী ৪-২ ঢাকা মোহামেডান
২৮ জুলাই ২০১৬ উত্তর বারিধারা ৩-৫ শেখ জামাল
১৪ আগস্ট ২০১৬ চট্টগ্রাম আবাহনী ৬-১ উত্তর বারিধারা
২৫ সেপ্টম্বর ২০১৬ ব্রাদার্স ইউনিয়ন ৪-৫ শেখ জামাল
২৯ সেপ্টম্বর ২০১৬ শেখ জামাল ৩-৩ ঢাকা আবাহনী
১ অক্টোবর ২০১৬ ফেনী সকার ১-৫ আরামবাগ
১৬ অক্টোবর ২০১৬ রহমতগঞ্জ ৪-৩ ব্রাদার্স ইউনিয়ন
  ৭ নভেম্বর ২০১৬ ঢাকা আবাহনী ৫-১ ফেনী সকার ক্লাব
 ১৯ নভেম্বর ২০১৬ ঢাকা আবাহনী ৬-১ মুক্তিযোদ্ধা
১৩ ডিসেম্বর ২০১৬ টীম বিজেএমসি ৫-৪ রহমতগঞ্জ

 

বিপিএলের ভিডিও রিভিউঃ

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: