ক্যারিবীয়দের অন্তবর্তীকালীন কোচ পাইবাস

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা: চলতি বছরের শেষে ভারতের বিপক্ষে হোম সিরিজ পর্যন্ত রিচার্ড পাইবাসকে অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট  বোর্ড। অস্থায়ী কোচ নিক পোথাসের স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন তিনি। স্টুয়ার্ট ল’য়ের বিদায়ের পর দলের অস্থায়ী কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন নিক পোথাস।

এর আগে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের হেড কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন পাইবাস। বর্তমানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের হাই পারফরমেন্স ডাইরেক্টর হিসেবে কর্মরত আছেন ৫৪ বছর বয়সী এই ইংলিশ কোচ।

নিয়োগ পাবার পর পাইবাস বলেছেন, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে, টি২০ ও টেস্ট দলের সাথে কাজ করতে আমি মুখিয়ে আছি। জেসন হোল্ডার ও কার্লোস ব্রেথওয়েইটের সাথে মিলে আমি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে চাই। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজে আমরা নিজেদের প্রমান করতে চাই। ইংল্যান্ড বিশ্বমানের দল। আমাদের হোম কন্ডিশনে তাদের রেকর্ড যথেষ্ট ভাল। ডাবলিনে আয়ারল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজও রয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ হোম ও এ্যাওয়ে ওয়ানডে সিরিজে আমাদের পরাজিত করেছে। অন্যদিকে আইসিসি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব থেকে ছিটকে পড়ায় আয়ারল্যান্ডও নিজেদের ফিরিয়ে আনার অপেক্ষায় আছে। আমাদের সব লক্ষ্য এখন বিশ্বকাপকে ঘিরে। ইংল্যান্ড ও ত্রিদেশীয় সিরিজে আমরা বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নিতে চাই।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেট পরিচালক জিমি এ্যাডাম মনে করেন ইতোমধ্যেই ক্যারিবীয় ক্রিকেটের সাথে কাজ করার অভিজ্ঞতা পাইবাসকে প্রধান কোচের ভূমিকায় অনেক দুর এগিয়ে রাখবে। তিনি বলেন, পাকিস্তান ও বাংলাদেশ জাতীয় দলের সাথে কাজ করার পূর্ব অভিজ্ঞতা নিয়ে পাইবাস ওয়েস্ট ইন্ডিজে যোগ দিয়েছেন। এছাড়াও ক্যারিবীয় ক্রিকেটে বর্তমান ও অতীত সম্পৃক্ততার কারণে খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের সাথে তার পরিচয় আছে। ইংল্যান্ড ও ভারতীয় সিরিজের পাশাপাশি বিশ্বকাপের প্রস্তুতিতেও এই বিষয়গুলো গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে।

১৯৯৯-২০০৩ সাল পর্যন্ত পাইবাস পাকিস্তানের হেড কোচ হিসেবে কাজ করেছেন। ২০০৭ সালে কাউন্টি দল মিডসেক্সের কোচ ছিলেন। ২০১২ সালে মাত্র পাঁচ মাসের জন্য বাংলাদেশের কোচের দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৩ সালে উইন্ডিজ হাই পারফরমেন্স ডাইরেক্টর পদে যোগ দেন। তিন বছর পরে তিনি কিছুদিনের জন্য বিরতি নিলেও গত বছর ফেব্রুয়ারিতে আবারো পুরোনো পদে ফিরে আসেন।
চলতি মাসে শেষে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ক্যারিবীয়রা তিন টেস্ট, পাঁচ ওয়ানডে ও তিনটি টি২০ ম্যাচ খেলবে। এরপরপরই রয়েছে আয়ারল্যান্ডের ত্রিদেশীয় সিরিজ ও বিশ্বকাপ। এরপর ঘরের মাঠে জুলাই-আগস্টে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে ভারতকে আতিথ্য দিবে ক্যারিবীয়রা।

বেস্ট বায়োস্কোপ স্পোর্টস
৬ জানুয়ারি ২০১৮

Comments

comments

Leave a Reply

1 Share
Share via
%d bloggers like this: