প্রস্তুতি ম্যাচেই আলো ছড়ালেন মোসাদ্দেক

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা: প্রথমবারের মতো পাক পেয়েছেন জাতীয় ওয়ানডে দলে। আর নির্বাচকরা যে ভুল করেননি তার প্রমাণ দিলেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে। শুক্রবার আফগানদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে বিসিবি একাদশের হয়ে মাঠে নেমেছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন।

দল হারলেও ঠিকই উজ্জ্বল ছিলেন মোসাদ্দেক। স্কোয়াডে থাকা সাব্বির রহমান ও ইমরুল কায়েসরা আলো ছড়াতে না পারলেও নিজেকে প্রমাণ করেছেন তিনি। মোহাম্মদ নবীর বলে বোল্ড হওয়ার আগে খেলেছেন ৭৬ রানের দূর্দান্ত এক ইনিংস। ৯৭ বলের তার ইনিংসে ৫টি চার ছাড়াও রয়েছে তিনটি ছয়ের মার।

মোসাদ্দেকের ‘প্রিয়’ ফরম্যাট ওয়ানডে ক্রিকেট। বৃহস্পতিবার জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ায় নিজের স্বস্তির কথা জানিয়েছিলেন তিনি। প্রিয় ফরম্যাটের ক্রিকেটে দারুণ কিছু করার ইঙ্গিত প্রস্তুতি ম্যাচেই দিয়ে রাখলেন ২১ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার। ফতুল্লায় আগত দর্শকরা প্রাণভরে উপভোগ করেছেন মোসাদ্দেকের ব্যাটিং।

১৯তম ওভারে প্রথমবারের মতো প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হন তিনি। স্লিপের পাশ দিয়ে চার হাঁকিয়ে শুরু। মাঝে ইন-সাইড আউটে দারুণ এক চার। শেষটায় লং লেগ দিয়ে আবার সীমানা ছাড়া করেন বলকে। ৩ ওভার পর চড়াও হন লেগ স্পিনার রশিদ খানের ওপর। মিডউইকেট দিয়ে ছক্কা হাঁকানোর পর কাট করে মারেন আরেকটি চার। ৩০তম ওভারেও বাউন্ডারি মারার এক বল পর পুল করে মিডউইকেট দিয়ে হাঁকান বিশাল এক ছক্কা। গ্যালারিতে রব উঠে মোসাদ্দেক-মোসাদ্দেক। ৩৩তম ওভারে মিডউইকেট দিয়ে তৃতীয় ছ্ক্কাটি হাঁকান মোসাদ্দেক।

বৃহস্পতিবার আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১৩ সদস্যের বাংলাদেশ একাদশ ঘোষণা করে বিসিবি। সেখানে প্রথমবারের মতো সুযোগ হয়েছে মোসাদ্দেকের। এই বছরই টি-টোযেন্টি ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। নিজের অভিষেক ম্যাচে সেভাবে আলো ছড়াতে না পারলেও প্রিয় ফরম্যাটে যে আলো ছড়াবেন তার আভাস প্রস্তুতি ম্যাচেই দিয়ে রাখলেন এই তরুণ।

প্রধান নির্বাচক মোসাদ্দেককে সুযোগ দেওয়া প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমকে বলেছিলেন, ‘কিছু কিছু ক্রিকেটার আছে যাদের মেধা আগে থেকেই খেয়াল করা যায়। মোসাদ্দেক ঘরোয়া ক্রিকেটে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস নিয়ে ব্যাটিং করেছে। বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটেও তার ভালো পারফরম্যান্স রয়েছে। গত দুই বছরে সে দারুণ খেলেছে। প্রিমিয়ার লিগেও তার পারফরম্যান্স খুব ভালো। আমরা মনে করি, সে প্রস্তুত হয়ে উঠেছে।’ তার প্রতি যে আস্থা নির্বাচকরা রেখেছেন তার জবাব দেওয়ার যে আভাস তিনি দিয়ে রেখেছেন; তাতে করে ক্রিকেটপ্রেমীরা স্বস্তি পেতেই পারে!

উল্লেখ্য, ঘরোয়া ক্রিকেটে সর্বশেষ মৌসুমে আবাহনীর জার্সিতে দুর্দান্ত পারফরম্ করেছিলেন মোসাদ্দেক। মূলত তারই পুরস্কার ওয়ানডে দলে সুযোগ। ঢাকা লিগে আবাহনীর হয়ে ৭৭.৭৫ গড় ও ১০৪.৮৯ স্ট্রাইক রেটে ৬২২ রান করেছিলেন মোসাদ্দেক; উইকেট নিয়েছিলেন ১৫টি। শুধু তাই নয়, বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে রেকর্ড তিনটি ডাবল সেঞ্চুরির মালিক মোসাদ্দেক। মাত্র ১৮টি ম্যাচ খেলে ৭০.৮৯ গড়ে ৬ সেঞ্চুরি ও ৭ হাফসেঞ্চুরিতে ১৯৮৫ রান করেছেন মোসাদ্দেক।

বেস্ট বায়োস্কোপ স্পোর্টস
২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৬

Comments

comments

Leave a Reply

0 Shares
Share via
%d bloggers like this: