তীরে এসে ডুবলো তরী

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা : ২০০০ সালে টেস্ট অভিষেকের পর এখন পর্যন্ত ৯৪টি টেস্ট খেলেছে বাংলাদেশ। এরমধ্যে ৮ ম্যাচে (চট্টগ্রাম টেস্ট ছাড়া) প্রতিপক্ষকে দু’ইনিংসেই অলআউট করে টাইগাররা। এর মধ্যে ৭টি ম্যাচে জিতেলেও, একটি ড্র হয়।

এবার চট্টগ্রাম টেস্টে ইংল্যান্ডকে দু’ইনিংসেই অলআউট করে টাইগাররা। নবমবারের মত এমন নজির গড়লো বাংলাদেশ। তাই অতীত রেকর্ড বলছিলো, ‘এক টেস্টে প্রতিপক্ষে দু’বার আউট করা ম্যাচেই জয় বা ড্র’র স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। চট্টগ্রামেও এর ব্যতিক্রম হবে না। কিন্তু ব্যতিক্রম হলো। এবারই প্রথম প্রতিপক্ষকে দু’বার অলআউট করেও ম্যাচ হারলো বাংলাদেশ।’

২০০৫ সালে টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম জয়ের স্বাদ পায় বাংলাদেশ। চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়েকে ২২৬ রানের বড় ব্যবধানে হারায় টাইগাররা। ঐ ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে দু’বার অলআউট করে বাংলাদেশ। ৩১২ ও ১৫৪ রানে নিজেদের ইনিংস গুটিয়ে নেয় জিম্বাবুয়ে।

সেই সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টেও জিম্বাবুয়েকে দু’বার অলআউট করে দেয় বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ২৯৮ ও ২৮৬ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। তবে ম্যাচটি ড্র হয়।

এরপর টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের দ্বিতীয় জয় আসে ২০০৯ সালে। কিংস্টনে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৯৫ রানে হারায় টাইগাররা। ঐ ম্যাচেও ক্যারিবীয়দের ৩০৭ ও ১৮৮ রানে গুটিয়ে দেয় বাংলাদেশের বোলাররা।

সফরের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট ৪ উইকেটে জিতে সিরিজ জিতে নেয় বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে ২৩৭ ও ২০৯ রানে অলআউট হয় ক্যারিবীয়রা।

বড় ফরম্যাটে চতুর্থ জয়ের জন্য আবারো দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয় বাংলাদেশকে। ২০১৩ সালে হারারেতে ১৪৩ রানের বড় ব্যবধানে জিম্বাবুয়েকে হারায় টাইগাররা। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে জিম্বাবুয়েকে ২৮২ ও ২৫৭ রানে গুটিয়ে দেয় মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বাধীন দলটি। ঐ জয়ে সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করে বাংলাদেশ।

এরপর ২০১৪ সালে ফিরতি সফরে বাংলাদেশে আসে জিম্বাবুয়ে। তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে মুশফিকুর রহিমের নেতৃত্বাধীন দলটি। তিন ম্যাচের ছয় ইনিংসেই অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। ছয় ইনিংসে জিম্বাবুয়ে দলীয় স্কোরগুলো ছিলো ২৪০, ১১৪, ৩৬৮, ১৫১, ৩৭৪ ও ২৬২।

তাই জিম্বাবুয়েকে ছয়বার ও ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দু’বার অলআউট করা ম্যাচে জয় ও ড্র’র স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। এবারও ইংল্যান্ডকে দু’বার অলআউট করে জয়ের স্বপ্নই দেখছিলো টাইগাররা। কিন্তু সেটি আর হলো না। ২২ রানে ম্যাচ হেরে ইতিহাস গড়তে পারলো না বাংলাদেশ।

বেস্ট বায়োস্কোপ স্পোর্টস
২৪ অক্টোবর ২০১৬

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: