শনিবার মাঠে গড়াচ্ছে বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লিগ

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা: ঘরোয়া ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদার আসর বাংলাদেশ পেশাদার লিগের দ্বিতীয় স্তর বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশীপ লিগ মাঠে গড়াচ্ছে ‍শনিবার। আট দলের অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এবং কমলাপুর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে লিগের ম্যাচগুলো। এবারই প্রথম আট দলের অংশগ্রহণে হচ্ছে এ টুর্নামেন্ট।

দলগুলো হলো- ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং, টি অ্যান্ড টি ক্লাব মতিঝিল, ফকিরেরপুল ইয়াং মেন্স, বাংলাদেশ পুলিশ, অগ্রণী ব্যাংক, সাইফ স্পোর্টিং, চট্টগ্রাম মোহামেডান ও কারওয়ান বাজার প্রগতি সংঘ।

এদের মধ্যে প্রথমবারের মত খেলছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ও কারওয়ানবাজার প্রগতি সংঘ।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ভবনে আজ এক সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী দলগুলোর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে বাফুফের পেশাদারী লিগ কমিটির চেয়ারম্যান ও সিনিয়র সহ সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী জানান ২০১৬ সালের ডিসেম্ভরের মধ্যেই এ লীগ শেষ হবে।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে লিগের উদ্বোধন করবেন যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয়।

বাংলাদেশ পুলিশ ক্লাবের ম্যানেজার কাজী নুসরাত আদীব রুনা জানালেন, গতবার আমরা সুযোগ মিস করেছি। এবার আমরা পাঁচজন নতুন খেলোয়াড় নিয়েছি। আশা করছি এবারও চ্যাম্পিয়ন রেসে থাকব।

দীর্ঘদিন পর ঢাকার ফুটবলে ফিরেছে চট্টগ্রাম মোহামেডান। ক্লাবের ম্যানেজার তৌহিদুল ইসলাম বলেছেন, দীর্ঘদিন পর ফিরেছি। সবাই দোয়া করবেন যেনো চমক দেখাতে পারি। হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে পারি। লিগে ভালো ফল করে চমক দেখাতে চায় চট্টগ্রাম মোহামেডান। আর তাই তারকা স্ট্রাইকার আলফাজ আহমেদকে কোচ হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ক্লাবটি।

টি অ্যান্ড টি ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান জানিয়েছেন, তারা চায় শিরোপা লড়াই করতে, গতবার অল্পের জন্য বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে উঠতে পারিনি। এবারো আপ্রাণ চেষ্টা করবো চ্যাম্পিয়ন হতে।

ভিক্টোরিয়া ক্লাবের যুগ্ন্ সম্পাদক নুরুজ্জামানের ভাষ্য তাদের ক্লাব হচ্ছে খেলোয়াড় তৈরীর কারখানা, ভিক্টোরিয়া ক্লাব খেলোয়াড়দের পাইপলাইন। আমাদের গতবারের বেশিরভাগ খেলোয়াড় পেশাদার লিগে চলে গেছে। এবার আমরা নতুন এবং কিছু অভিজ্ঞ ফুটবলারদের নিয়ে দল গঠন করেছি। আশাকরছি এবার নতুনরা ভালো পারফর্ম করবে।

অগ্রণী ব্যাংকের মিডিয়া কর্মকর্তা রফিক বলেছেন, প্রতিবারই আমরা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে খেলোয়াড় সংগ্রহ করি। মতিউর মুন্না, রাব্বি, তুর্য আমাদের ক্লাব থেকেই উঠে এসেছেন। আমাদের লক্ষ্য থাকবে চ্যাম্পিয়ন ফাইট দেয়া। দল বিপিএলে উঠলে আমরা আরো বড় বাজেটে দল গড়ব।

কারওয়ান বাজার প্রগতি সংঘের ম্যানেজার জিয়াউদ্দিন এমডি সুজনও জানিয়েছেন, ভালো মানের ফুটবলার দিয়ে দল গড়েছেন তারা। লক্ষ্য চ্যাম্পিয়ন লড়াই করা।

ফকিরের পুল ইয়ংম্যান্স ক্লাবের ম্যানেজার আরিফুর রহমান রবিনও চান লিগে সুন্দর ও সাবলীল খেলা উপহার দিতে।

এবার চমক দেখাতে আসা নতুন আরেক ক্লাব সাইফ স্পোর্টিং। ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রহমান চান ম্যাচগুলো যেনো সুষ্ঠু হয়। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, আমাদের উদ্দেশ্য চ্যাম্পিয়ন হওয়া। আমরা চাই ম্যাচগুলো যেনো সুন্দর ও সাবলীল হয়। কোন পাতানো ম্যাচ যেনো না হয়। যাতে দেশের ফুটবলের উন্নয়ন হয়।

বেস্ট বায়োস্কোপ স্পোর্টস
২৮ অক্টোবর ২০১৬

Comments

comments

Leave a Reply

0 Shares
Share via
%d bloggers like this: