৫০ বছর পেরিয়ে ফেলুদা

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা : ৫০ বছরে পা দিল সত্যজিত রায়ের প্রকাশিত ‘ফেলুদা’।  জনপ্রিয় এই গোয়েন্দা চরিত্রটি বইতেএকই থাকলেও পর্দায় এই ৫০ বছরে পাল্টেছে ফেলুদার মুখ।

সবসময়ই বয়স ২৭ এর ফেলুদা। এই চরিত্রে পর্দায় দেখা গেছে এখন পর্যন্ত চার অভিনেতাকে। সত্যজিত রায় পরিচালিত সিনেমায় ফেলুদা চরিত্রে অভিনয়ে করেছেন সৌমিত্র চট্টপাধ্যায়। এরপর তার ছেলে সন্দীপ রায়ের সিনেমায় অভিনয় করেছেন শশী কাপুর। এরপর  অনবদ্য অভিনয় করে সবার নজর কাড়েন সব্যসাচী চক্রবর্তী। সর্বশেষ এই চরিত্রে অভিনয়ে নাম লেখান আবির চট্টপাধ্যায়।

এক নজরে দেখুন বড় পর্দায় ফেলুদা

সোনার কেল্লা সত্যজিতের প্রথম ‘ফেলুদা’ ছবি। ১৯৭৪ সালে সিনেমাটি মুক্তি পায়। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং সন্তোষ দত্ত ছিলেন মুখ্য ভূমিকায়। সোনার কেল্লা পাঁচটি জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত ছায়াছবি।

জয় বাবা ফেলুনাথ। সাল ১৯৭৯। সত্যজিত রায়ের ‘ফেলুদা’ গল্পের দ্বিতীয় পূর্ণ দৈর্ঘ্যের ছবি। ফেলুদার চরিত্রে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, তোপসের ভূমিকায় সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং সন্তোষ দত্ত জটায়ুর ভূমিকায় অভিনয় করেন।

সাল ১৯৮৬। ডিডি ন্যাশনালে সত্যজিৎ পুত্র সন্দীপ রায়ের নির্দেশনায় শুরু হয় টিভি সিরিজ। গল্প ‘কিসসা কাঠমান্ডু কা’, মূল গল্পটির নাম ছিল যত কান্ড কাঠমান্ডুতে।

‘কিসসা কাঠমান্ডু কা’- ফেলুদা চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শশী কপূর। তোপসের চরিত্রে মাস্টার অলঙ্কার এবং জটায়ু ছিলেন মোহন আগাসে

২০১০ সালে মুক্তি পায় ‘গোরস্থানে সাবধান’। ফেলুদার চরিত্রে সব্যসাচী চক্রবর্তী ছিলেন বিদ্যমান, জটায়ুর ভূমিকায় বিভু চট্টোপাধ্যায়, তবে তোপসের চরিত্রে আসেন নতুন মুখ সাহেব চট্টোপাধ্যায়।

‘বোম্বাইয়ের বোম্বেটে’ সন্দীপ রায়ের প্রথম পূর্ণ দৈর্ঘ্যের ছায়াছবি। ফেলুদা হয়ে পর্দায় নামেন সব্যসাচী চক্রবর্তী, পরমব্রত বন্দোপাধ্যায় তোপসের ভূমিকায়, এবং জটায়ু বিভু ভট্টাচার্য।

২০১৪তে বাদশাহী আংটিতে ফেলুদা হয়ে ওঠে আরও স্মার্ট। সন্দীপ রায়ের এক প্রকার কামব্যাক বলাও যেতে পারে। তবে এ গল্পে জটায়ু ছিল মিসিং। বাদশাহী আংটি ছবিতে অভিনয় করেন আবির চট্টোপাধ্যায়। আর তোপসে সৌরভ দাস। বক্স অফিস কালেকশন প্রায় ৪ কোটি।

সূত্র: আনন্দবাজার

বেস্ট বায়োস্কোপ বিনোদন
২৭ নভেম্বর ২০১৬

 

Comments

comments

Leave a Reply

115 Shares
Share via
%d bloggers like this: