বিপিএল ২০১৭: আলো থাকছে যাদের ওপর

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা:: টি-টোয়েন্টি মানেই ধুন্ধুমার  ব্যাটিং আর চার-ছক্কার ফুলঝুড়ি। গ্যালারির দর্শক উন্মুখ হয়ে বসে থাকেন কখন বল সীমানার উপর দিয়ে আছড়ে পড়বে দর্শকদের মাঝে। আর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে এই ‘ছক্কার খেলার’ সবচেয়ে বড় দুই তারকা ক্রিস গেইল আর ব্রেন্ডন ম্যাককালাম খেলছে একই দলে।

ইতোমধ্যে টুর্নামেন্টের সবচেয়ে কাঙ্খিত এই ব্যাটিং জুটির খেলা দেখে ফেলেছে দর্শক। তবে টুর্নামেন্ট জুড়ে আরও কিছু বিদেশি খেলোয়াড়দের ব্যাটিং দেখার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে দর্শকরা। বাংলাদেশি মাশরাফি-সাকিব-তামিমদের বাইরে এই বিদেশিরাও রয়েছে দর্শকদের আগ্রহের কেন্দ্রে।

বিপিএলের প্রথম দিকে পাঁচজন করে বিদেশি খেলানোর নীতিমালা ছিল। গত দুই আসরে সেটা কমিয়ে চারে আনা হয়েছিল, দেশি ক্রিকেটারদের সুযোগ বাড়ানোর জন্য। তবে, এবার বিপিএলের গর্ভর্নিং কাউন্সিল আবারো উল্টো পথে হেঁটেছে। প্রতিটি ম্যাচেই সুযোগ পাচ্ছেন পাঁচজন করে বিদেশি ক্রিকেটার। টুর্নামেন্ট জমজমাট করতে বিদেশি খেলানোর বিকল্প নেই বলে ধারণা আয়োজকদের। দলগুলোও তাই নিয়ে এসেছে দামী সব ক্রিকেটার।

একনজরে দেখুন বিপিএলের ৫ম আসরে আলো থাকবে যাদের ওপর।

ক্রিস গেইলঃ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের ফেরিওয়ালা বলা হয়ে থাকে ক্রিস গেইলকে। যে কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশে টি-টোয়েন্টি লিগ হলেই, সেখানেই খেলেন গেইল। এরই ধারাবাহিকতায় এবার রংপুর রাইডার্সের হয়ে বিপিএল মাতাতে ঢাকায় পৌঁছেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের মারকুটে এই ওপেনার। বিপিএলে গেইল এখন পর্যন্ত ১৫ ম্যাচে মাঠে নেমে ৩ সেঞ্চুরি ও ১ হাফ সেঞ্চুরিতে করেছেন ৬৫০ রান। এ রান করতে ছয় ও চার মেরেছেন ৬০ ও ৪২ টি। আর টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি ও ছক্কার রেকর্ড এই ক্যারিবয়ান ব্যাটিং দানবেরই দখলে।

ব্রেন্ডন ম্যাককালামঃ বিপিএলে এবারই প্রথম খেলতে যাচ্ছেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংস, কলকাতা নাইট রাইডার্স ও গুজরাট লায়ন্সের জার্সিতে ভারতীয় দর্শকদের মাতানো এ ব্যাটসম্যান সর্বশেষ ক্যারিবীয় প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা জিতে এসেছেন। ত্রিনবাগো নাইট রাইডার্সকে দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন করতে ব্যাট হাতে দারুণ অবদান রেখেছিলেন কিউই ওপেনার। ম্যাককালামকে দেশের ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় রংপুর রাইডার্সের হয়ে এবার খেলতে দেখা যাবে।

শহীদ আফ্রিদিঃ প্রথম আসর থেকেই নিয়মিত বিপিএলে অংশ নিচ্ছেন শহীদ আফ্রিদি। ধুম-ধারাক্কা ব্যাটিংয়ের জন্য বিশ্বজুড়েই ভীষণ জনপ্রিয় এই স্পিনিং অলরাউন্ডার। সব জায়গায় তার পরিচিতি ‘বুম-বুম’ আফ্রিদি হিসেবে। পঞ্চম আসর মাতাতে ঢাকা ডায়নামাইটস এর হয়ে খেলছেন শহীদ আফ্রিদি।  ব্যাটিং ছাড়াও বোলিংয়েও নজর কাড়বেন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই উইকেট শিকারী।

রশিদ খানঃ ক্রিকেটে লেগ স্পিনকে বলা হয় শিল্প; যা বিদগ্ধ অনুরাগীদের হৃদয়ে জাগায় রোমাঞ্চ! ১৯ বছর বয়সী রশিদ খানকে বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে প্রতিশ্রুতিশীল লেগ স্পিনার মনে করা হয়। শেন ওয়ার্ন, অনিল কুম্বলেদের বিদায়ের পর প্রায় বিলুপ্ত হতে চলা লেগ স্পিন শিল্পের এই সময়ের সার্থক অনুসারী তিনি। গতবারই প্রথম বিপিএল খেলেছিলেন রশিদ খান। কুমিল্লার হয়ে ৮ ম্যাচে নিয়েছিলেন দলটির পক্ষে যুগ্মভাবে (মাশরাফির সঙ্গে) সর্বোচ্চ ১৩ উইকেট, যার গড় ১৪.৯২, ইকো ৬.০৬, স্ট্রাইকরেট ১৪.৭০। রংপুর রাইডার্সের সঙ্গে শেষ ম্যাচে ৮ রানে কুমিল্লার জয়ে ৪ ওভারে ১৩ রানে ৩ উইকেট নিয়ে প্রথমবার পেয়েছিলেন ম্যাচসেরার খেতাব। সেই রশিদকে যে কুমিল্লা ধরে রাখবে, সেটা তো অনুমিতই।

সাঙ্গাকারা: একজন ক্রিকেট লিজেন্ড, শুধু তার সময়েরই নয়, সর্বকালের সেরাদের একজন ব্যাটসম্যান। ১৫ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে ১৩৪ ম্যাচে ৩৮ সেঞ্চুরি ও ৫২টি হাফ সেঞ্চুরি সহ রান করেছেন ১২৪০০। ১১ টি ডাবল সেঞ্চুরি নিয়ে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের (১২টি) নিচেই তার স্থান। মাহেলা জয়াবর্ধনের সাথে তর গড়া ৭৪১ রানের জুটি টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ। ওয়ানডে ক্রিকেটে ৪০৪ ম্যাচে ২৫টি সেঞ্চুরি ও ৯৩টি হাফসেঞ্চুরিতে তার সংগ্রহ ১২২৩৪ রান।

 

বেস্ট বায়েস্কোপ স্পোর্টস
১৭ নভেম্বর ২০১৭

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: