‘ওয়ান ডাউনে’ মাশরাফি চমক, ব্যাটে তুললেন ঝড়

বেস্ট বায়োস্কোপ, ঢাকা: গেইল-ম্যাককালামের ওপেনিং। তখনও কেউ ভাবতে পারেননি একটু পর কি ঘটছে। ম্যাককালাম আউট হওয়ার পর চমক দিলেন অধিনায়ক মাশরাফি নিজেই। ওয়ানডাউনে নেমে পড়লেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’। সেই চমক সামলে ওঠার আগেই দর্শক দেখলো মাশরাফি ঝড়। ১৭ বলে ৪২ রানের অনবদ্য এক ইনিংস খেললেন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা।

শনিবার চট্টগ্রামে বিপিএলের ২৮তম ম্যাচে মুখোমুখি হয় মাশরাফি বিন মর্তুজার রংপুর রাইডার্স এবং চিটাগং ভাইকিংস। টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় রংপুর। ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৭৬ রান তুলে ভাইকিংস।

১৭৭ রান তাড়ায় ওয়ানডাউনে নেমে ঝড় তুলেছিলেন মাশরাফি, মিডল অর্ডারে হাল ধরে দলকে পথে রেখেছিলেন মোহাম্মদ মিঠুন। শেষটা করলেন থিসারা পেরেরা।

প্রথম দুই ওভারে একটি করে ছক্কা মেরে শুরু করেছিলেন গেইল-ম্যাককালাম দুজনেই। কিন্তু তাদের চেপে ধরার কাজটাও দারুণভাবে করে যাচ্ছিলেন ভাইকিংস বোলাররা। প্রথম ৪ ওভার থেকে তাই এই দুজন নিতে পারলেন মাত্র ১৮ রান। বিপিএলে প্রথমবার খেলতে এসে কোন তালই পাচ্ছেন না ম্যাককালাম। এবারও রান পাননি। আউট হয়েছেন ২০ বল খেলে, করেছেন মাত্র ১৫ রান।

ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম আউট হতেই চমকে উঠল পুরো স্টেডিয়াম। ব্যাট হাতে নেমে পড়েছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা! উইকেটে যতক্ষণ ছিলেন, পুরোটা সময়ই বিস্মিত করে গেছেন রংপুর অধিনায়ক। মাশরাফি নেমেই ঘুরিয়ে দেন ম্যাচের মোড়। গেইলের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৬০ রানের জুটি গড়েন মাত্র ৪ওভার ২ বলেই। তাতে মাশরাফির রান ১৭ বলে ৪২!

অধিনায়কের ইনিংস দলকে ফেরায় জয়ের পথে। পরে থিসারা পেরেরার ১৪ বলে ২৮ রানের ইনিংস ও শেষ বলে ছক্কা জিতিয়েছে রংপুরকে।

ম্যাচ শেষে মাশরাফি জানালেন, রান বাড়ানোর তাগিদ থেকেই তার তিনে নামার সিদ্ধান্ত।

“তিনে আসার কারণ… আসলে স্লগ করার জন্য। রানটাও তখন হচ্ছিল না। আগের দুই ম্যাচেও আসার চিন্তা ছিল। কোনো কারণে হয়নি। আজকে শিশির ছিল, স্পিনাররা টার্ন না পেলে ভালো খেলা সম্ভব। ভাবলাম চেষ্টা করে দেখি। কাজে লেগে গেছে। আসলে কিছু সিদ্ধান্ত ‘আউট অব দা বক্স’ না নিলে এ ধরনের ম্যাচ জেতা কঠিন।”

যখন নেমেছিলেন, দল তখন দারুণ চাপে। কিন্তু কোনো চাপ নেননি রংপুর অধিনায়ক।

“চাপ না। আমি আসলে যখন ব্যাটিংয়ে নামি, সবাই জানে যে আমার উইকেটের কোনো মূল্য নেই। আমি সেই সুবিধা নিতে চাই। চেষ্টা করি দ্রুত কিছু রান করতে। এটিই উদ্দেশ্য থাকে। ব্যাটসম্যান হয়ে ওঠার কোনো ইচ্ছা নিয়ে আমি নামি না। নিজের প্রতি বা দলেরও ও রকম আশা রাখি না যে আমি গিয়ে রান করব। রান করতে পারলে ভালো।”

এবারই এক ম্যাচে পাঁচে নেমেছেন। আগেও মিডল অর্ডারে নেমে ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলেছেন টি-টোয়েন্টিতে। খেললেন এবারও। আবারও কি দেখা যেতে পারে তিনে? মাশরাফি সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন না।

“ইউ নেভার নো! পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে। যেটা বললাম, কোনো আশা নিয়ে নামি না। সামনে করলে হয়ত আমার বিপক্ষে যেতে পারে কোনো দিন। আজকেও যেতে পারত। শট খেলতে গিয়ে আউট হতে পারতাম। আবার ভালোও করতে পারি।”

বেস্ট বায়োস্কোপ স্পোর্টস
২৬ নভেম্বর ২০১৭

Comments

comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: